অলিখিত সেমিফাইনালে চ্যালেঞ্জার্স

15 Feb 2022
অলিখিত সেমিফাইনালে চ্যালেঞ্জার্স

টানা তিন ম্যাচ জিতে অলিখিত সেমিফাইনালে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসকে হারাতে পারলেই ফাইনালের মঞ্চে পা রাখবে বন্দর নগরীর দলটি।

বঙ্গবন্ধু বিপিএল-এর এলিমিনেটরে খুলনা টাইগার্সকে ৭ রানে হারিয়েছে চট্টগ্রামের প্রতিনিধিরা। অপরদিকে কোয়ালিফাইয়ার্স ম্যাচে ফরচুন বরিশালের কাছে হেরেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। এ ম্যাচের জয়ী দল ফাইনালে ফরচুন বরিশালের মুখোমুখি হবে। মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে বুধবার সন্ধ্যায় শুরু হবে চট্টগ্রাম-কুমিল্লার ফাইনালে ওঠার লড়াই।

‘ম্যাচে আমাদের প্রধান ও একমাত্র লক্ষ্য হচ্ছে জয়। জয়ের জন্যই দলের প্রতিটি সদস্য মাঠে নামবেন। আমরা গেল তিনটা ম্যাচ জিতেছি। ম্যাচগুলোতে দলের সকলের নৈপুণ্য ছিল অসাধারণ’ –কুমিল্লার বিপক্ষে লড়াইয়ের আগে বলছিলে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের তরুণ পেসার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী।

whatsapp-image-2022-02-15-at-9.27.46-pm

৭ ম্যাচে ১৪ উইকেট নিয়েছেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সাবেক এ পেসার। সঙ্গে ছিল দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিকও। চ্যালেঞ্জার্সের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি মৃত্যুঞ্জয় আছেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি তালিকার চতুর্থ স্থানে। ১৩ উইকেট নিয়ে চ্যালেঞ্জার্সের দ্বিতীয় সেরা উইকেট শিকারি মেহেদী হাসান মিরাজ।

দুটি ম্যাচ জেতানো নৈপুণ্য দেখানো মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর মতে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের জন্য ম্যাচটা বাঁচা-মরার লড়াই, ‘আগের ম্যাচগুলোতে সকলে যেভাবে শতভাগ দেয়ার চেষ্টা করেছেন, আশাকরছি বাঁচা-মরার ম্যাচেও সেভাবে নিজেদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করবেন। যাতে ভাল একটা জয় নিয়ে ফাইনালে পৌছাতে পারি।’

ব্যাটিংয়ে দলের সেরা পারফর্মার উইল জ্যাকস অসুস্থতার কারণে শেষ ম্যাচ খেলতে পারেননি। তার জায়গায় কেনার লুইস ওপেনিংয়ে নেমে ৩৯ রান করেছেন। ৪৪ বলে ৮৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছেন চাদউইক ওয়ালটন। এ ম্যাচের আগে উইল জ্যাকসকে পাওয়ার বিষয়ে আশাবাদী চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ম্যানেজম্যান্ট। ১০ ম্যাচে ৪ ফিফটিসহ ৩৯৮ রান করেছেন ২৩ বছর বয়সি ইংলিশ ক্রিকেটার জ্যাকস।

whatsapp-image-2022-02-15-at-9.27.43-pm

টাইট শিডিউল ও টানা ম্যাচ খেলার ধকল কাটিয়ে উঠতে মঙ্গলবার অনুশীলন করেননি চ্যালেঞ্জারর্সের ক্রিকেটাররা। এদিন জিমে ঘাম ঝরানোর পর সুইমিংপুলে খানিকটা সময় কাটিয়েছেন আফিফ হোসেন-মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীরা।

ম্যাচের আগে নিজের ব্যক্তিগত লক্ষ্য সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী বলেছেন, ‘দলের প্রয়োজনে যেকোনো ভূমিকা পালন করতে চাই। সময়ের প্রয়োজন যদি উইকেট নেয়া জরুরি হয় সে চেষ্টা করব। অনেকসময় ডট বল গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়। দলের প্রয়োজন হলে ডট বল করার চেষ্টাও থাকবে।’

সাতক্ষীরা থেকে উঠে আসা এ ক্রিকেটার আরও বলেন, ‘আমার মৌসুমটা ভাল যাচ্ছে, উইকেট পাচ্ছি। সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি তালিকার ওপরের দিকে থাকতে চেষ্টা করব। প্রতি ম্যাচেই উইকেট নেয়ার চেষ্টা করব।’

Sponsor

Top